তিস্তার পানি বাড়ছে

তিস্তার পানি বাড়ছে

  • সিলেটে অবনতি।
  • চট্টগ্রামে ভারী বৃষ্টি আর পাহাড়ধসের আশঙ্কা।
  • নতুন করে বাড়ছে তিস্তার পানি। কিছুদিন থমকে থাকার পর সিলেটে সুরমা ও কুশিয়ারার পানি আবারও বাড়তির দিকে। দেশের উত্তর ও মধ্যাঞ্চলের ভেতর দিয়ে বয়ে যাওয়া যমুনার পানি বিপৎসীমা ছুঁই ছুঁই করছে। সব মিলিয়ে আগামী এক সপ্তাহে দেশের বিভিন্ন এলাকা পর্যায়ক্রমে বন্যার পানিতে প্লাবিত হতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে সরকারের বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র। এই বন্যা দুই থেকে চার দিন স্থায়ী হতে পারে।

    বন্যা সতর্কীকরণ কেন্দ্রের পূর্বাভাস বলছে, বাংলাদেশের উজানে ভারতীয় অংশে প্রবল বৃষ্টি শুরু হয়েছে। আগামী এক সপ্তাহে দেশের ভেতরেও বৃষ্টিপাত বাড়তে পারে। অন্যদিকে ব্রহ্মপুত্র অববাহিকার বাংলাদেশের অংশে অর্থাৎ যমুনা ও গঙ্গার বাংলাদেশ অংশে পদ্মার পানিও প্রতিদিন বাড়ছে। সংস্থাটির সারা দেশের নদ-নদীগুলোর পাশে পানি মাপার ৯৪টি স্টেশনের মধ্যে ৫৩টিতে পানি বেড়েছে। আর কমেছে ৩৮টির। বিপৎসীমার ওপর দিয়ে বইছে পাঁচটি স্টেশনের নদীর পানি। এর সব কটিই সুরমা ও কুশিয়ারা নদীতে।

    এ ব্যাপারে বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আরিফুজ্জামান ভূঁইয়া প্রথম আলোকে বলেন, সিলেট অঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতি আজকের মধ্যেই অবনতি হতে পারে। নতুন এলাকা প্লাবিত হওয়ার সম্ভাবনা আছে। তিস্তার পানি যেভাবে বাড়ছে, তাতে আজ বা আগামীকালের মধ্যে তিস্তাপারের জেলা নীলফামারী ও লালমনিরহাটে বন্যার পানি প্রবেশ করতে পারে। তবে ওই পানি এক থেকে দুই দিন স্থায়ী হয়ে তা আবার নেমে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। পদ্মার পানি যেভাবে বাড়ছে, তাতে সিরাজগঞ্জ দিয়ে শুরু হয়ে দেশের উত্তর ও মধ্যাঞ্চল আগামী চার থেকে পাঁচ দিনের মাথায় প্লাবিত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

    সিলেটে অবনতি। পদ্মার পানি বেড়ে সপ্তাহের শেষ নাগাদ দেশের উত্তর-মধ্যাঞ্চলে বন্যা হতে পারে। চট্টগ্রামে ভারী বৃষ্টি আর পাহাড়ধসের আশঙ্কা।

    আবহাওয়া অধিদপ্তর বলেছে, চার-পাঁচ দিন ধরে দুর্বল হয়ে থাকা মৌসুমি বায়ু গতকাল রোববার থেকে আবারও শক্তিশালী হয়ে উঠেছে। এর প্রভাবে আজ দেশের সব কটি বিভাগের কিছু কিছু স্থানে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। ভারী বর্ষণের কারণে চট্টগ্রামে পাহাড়ধসের আশঙ্কা করছে সংস্থাটি। এ ছাড়া দেশের প্রায় সবখানে আজ হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হতে পারে।